কেউ কি আমাকে বলবেন? | মুহম্মদ জাফর ইকবাল


পরশুদিন আমাকে একটা মেয়ে ফোন করেছে। সে এইচএসসি পরীক্ষার্থী। মেয়েটি খুবই বিচলিত। কারণ সে জানতে পেরেছে- পদার্থবিজ্ঞানের প্রশ্ন ফাঁস হয়ে গেছে। মেয়েটি বলল, আমরা এতো কষ্ট করে পড়াশোনা করি আর কিছু মানুষ বাজার থেকে প্রশ্ন কিনে এনে পরীক্ষা দেয়, পরীক্ষায় ভালো করে, ভালো জায়গায় সুযোগ পায়। তাহলে এটাই কী নিয়ম- এই দেশটা দুর্বৃত্তদের? আমরা কিছু না?

আমি মেয়েটাকে সান্ত্বনা দিলাম। বললাম- শিক্ষামন্ত্রী যেটা বলেছেন, সেটা নিশ্চয়ই সত্যি। আসলে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে বলে ধোকা দিয়ে কিছু কিছু ছাত্রছাত্রীকে ঠকিয়ে কিছু মানুষ টাকা কামিয়ে নেয়। পরীক্ষা হয়ে যাওয়ার পর সেই প্রশ্নটি দেখিয়ে হৈচৈ করে। মেয়েটি বলল, ‘আমার কাছে যে প্রশ্ন আছে আমি আপনাকে এখনই পাঠিয়ে দিই। দু’দিন পর পরীক্ষা হয়ে গেলে আপনি মিলিয়ে নেবেন।’ আমি বললাম, ‘ঠিক আছে।’ মেয়েটি সাথে সাথে আমাকে হাতে লেখা কিছু প্রশ্ন পাঠিয়ে দিল।

আজকে পরীক্ষা ছিল। সকাল থেকে আমি মনে মনে দোয়া করছি- যেন প্রশ্নগুলো মিলে না যায়, আমি মেয়েটিকে বলতে পারব- দেখেছ, আাসলে প্রশ্ন ফাঁস হয় না!

দুপুরে মেয়েটি ফোন করে জানালো- ফাঁস হওয়া প্রশ্ন মিলে গেছে। আমাকে সে এক কপি প্রশ্ন পাঠিয়েছে।

ফাঁস হওয়া প্রশ্ন ০১

ফাঁস হওয়া প্রশ্ন ০২

 

আমি পরীক্ষার প্রশ্ন আর দু’দিন আগে পাওয়া হাতে লেখা প্রশ্ন একসাথে করে দিয়ে দিচ্ছি। কেউ বিশ্বাস না করলে নিজের চোখে মিলিয়ে নিতে পারবে। আমার ই-মেইলের তারিখ আর সময়টিও যুক্ত করে দিলাম। মেয়েটির ই-মেইল এড্রেস সরিয়ে দিলাম, যাতে সে যেন আবার উটকো ঝামেলায় না পড়ে।

মেয়েটি আমাকে বলেছে- স্যার, কিছু একটা করেন।

কেউ কি আমাকে বলতে পারবে, আমি কী করব? এই দেশের ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করে আমাদের দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাবে, আমরা সেটা নিয়ে কতো স্বপ্ন দেখি। আমাদের ছেলেমেয়েরা এই স্বপ্নকে ধারণ করে, লেখাপড়া করে, তারপর দেখা যায়- এই দেশের সরকার একটা পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা দিতে পারে না! আমি বিশ্বাস করতে রাজি না যে, আন্তরিকভাবে চাইলে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো সমস্যা হওয়া সম্ভব। আমি যে মেয়েটার কথা বলছি, সে আমাকে ফোন করার আগে পাগলের মতো সব জায়গায় ফোন করে তার অভিজ্ঞতাটি জানাতে চেষ্টা করেছে- কেউ শুনতে রাজি হয়নি।

একটা সমস্যা না দেখার ভান করলেই কি সমস্যাটা মিটে যায়? সমস্যা মেটাতে চাইলে সেটাকে সবার আগে স্বীকার করতে হয়। দেশের সর্বোচ্চ মহল এই সমস্যাটা স্বীকার করতেই রাজি না। তাহলে সমস্যাটা সমাধান হবে কেমন করে?

এই দেশের ছেলেমেয়েদের আমরা নতুন জীবনের স্বপ্ন দেখাতে চাই। ভয়ঙ্করভাবে ক্ষুব্ধ এই হতাশ ছেলেমেয়েগুলোকে আমরা কেমন করে স্বপ্ন দেখাবো?

কেউ কি আমাকে বলবেন?

Advertisements

11 thoughts on “কেউ কি আমাকে বলবেন? | মুহম্মদ জাফর ইকবাল

  1. ভালো আছেন স্যার?যারা ফাঁস করা প্রশ্ন পরে পাশ করে,তাদের জ্ঞান তো খুবই সীমিত।তারা খুব বেশী দূর যেতে পারে না।তারা সহজে কাজ পায় না,পেলেও দায়িত্ব নিয়ে তা করতে পারে না।জীবনে প্রচুর হোচট খায়,কারন তারা পরনিভরশীল।ওদের এত ভয় পাওয়ার কিছু নেই।যাদের ভিত্তি শক্ত,যারা পরিশ্রম করে,তারা যেকোন বাধা সহজেই অতিক্রম করতে পারে।

    Like

  2. in my opinion, we should wake up. because it is high time to take drastic action against the persons who r involve to this process. otherwise, our generation will suffer in the long run. besides the Authority, controller of the entitle department must be answerable for this. no doubt, He or his fellows are contributing to this regard directly or indirectly.

    Like

  3. Learners who preparing themselves to achieve better results by study/exercise they are demolishing, discouraging to continue their study in this situation, not achieving quality education.Those who are occurring this this type of incidence, never punished yet. As a result they are encouraging to do again and also joining someone as a new member with them. They are singing our national song” amar sonar bangla ami tomai valobasi….”, this is the reality, our patriotism. As a citizen I have a question to Education Minister and other concerned what is the punishment against this type of serious crime?

    Like

  4. Instead of looking on instant success, we should think about future. + collecting questions before exam is expensive. Most of the case it is collected by the guardians. So, how can a nation expect clean next generation from dirty parent?!

    Like

  5. খুব সহজে সমাধান হবে না । কার্যকর পদক্ষেপ দরকার অর্থাৎ আইনের শাসন।

    Like

  6. কিভাবে নিজের গা বাঁচিয়ে লিখতে ও বলতে হয় এবং অতঃপর কপট বেদনাবোধ প্রকাশ করতে হয় এই Art যেন কেঊ আপনার কাছ থেকে শিখে।

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s